১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবস ২০২২/ Happy Valentine’s Day 2022,

১৪ ই ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবস-হ্যালো বন্ধুরা আপনাদের সবাইকে জানাই ১৪ ই ফেব্রুয়ারি  বিশ্ব ভালোবাসা দিবসের অফুরন্ত ভালোবাসার শুভেচ্ছা। মানুষ মাত্রই ভালবাসা পাবার জন্য ভালোবাসা দেবার জন্য সর্বদা আকুলায়িত। এই ভালোবাসা আবার বিভিন্ন রকমের হয়। পিতা-পুত্রের ভালোবাসা ভাই বোনের ভালোবাসা স্বামী স্ত্রীর ভালোবাসা। মানুষ তাদের মনের আবেগ প্রকাশের জন্য ভালোবাসা দিবস নামের একটি দিনের প্রকাশ ঘটায়। তারা এই দিনে বিভিন্ন ভাবে নিজেদের ভালোবাসার প্রকাশ ঘটায়।

বিশ্ব ভালোবাসা দিবস

ভালোবাসা দিবসের সূচনা কালে শুধুমাত্র ইতালির রোমে এ ভালোবাসা দিবস তথা ভ্যালেন্টাইন্স ডে পালন করা হত। কিন্তু বর্তমানে বিশ্বের প্রায় বেশকিছু দেশে এই দিবসটি পালিত হয়। বর্তমানে এই ভালোবাসা দিবসের সিমা শুধুমাত্র প্রেমিক আর প্রেমিকার রোমান্টিক কথার মধ্যে খুঁজে পাওয়া যায়। তাই এই ভালোবাসা দিবস টি শুধুমাত্র প্রেমিক এবং প্রেমিকের মধ্যেই প্রাধান্য বিস্তার করে।

ভালোবাসা দিবসের ইতিহাস

এই ভালোবাসা দিবসের সূচনা হয়েছিল ইতালির রোম শহরে। ইতালির রোম নগরী সেন্ট ভ্যালেন্টাইন নামে একজন খ্রিস্টান পাদ্রী ও চিকিৎসক ছিলেন। তিনি ধর্ম প্রচার করার অভিযোগে কারাবন্দি হয়েছিলেন। কিন্তু তিনি কারারক্ষীর অন্ধ মেয়েকে চিকিৎসা দিয়ে দৃষ্টি ফিরিয়ে দেন। এতে রাজার খোপ বৃদ্ধি পায়। তিনি সেন ভ্যালেন্টাইন্স কে হত্যা করেন। তখন সেই দিনটিকে ভ্যালেন্টাইন্স ডে হিসেবে রুমে পালিত হয়।

বয়স্ক ভাতা অনলাইনে আবেদন করার নিয়ম 2022

পর্যাক্রমে এই দিনটি রোমান্টিকতার ধারায় গরিয়ে গরিয়ে আজকের ভালোবাসা দিবসে রূপ নেয়। ভালোবাসা দিবসকে ঘিরে প্রেমিক-প্রেমিকাদের মধ্যে ফুল, চকলেট প্রভৃতি বিনিময় করতে দেখা যায়। 14 ই ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসকে ঘিরে আরও কিছু ডে এর উৎপত্তি হয়। যেমন রোজ ডে, প্রপোজ ডে, চকলেট ডে, টেডি ডে, প্রমিস ডে, হাগ ডে, কিস ডে এবং শেষে ভ্যালেন্টাইন্স ডে।

রোজ ডে

প্রতি বছর 7 ফেব্রুয়ারি রোজ ডে পালিত হয়। ভ্যালেন্টাইন্স ডে কে কেন্দ্র করে রোজ ডে এর উৎপত্তি হয়। রোজ ডেতে একজন অন্যজনকে গোলাপ ফুল দিয়ে মনের আবেগ প্রকাশ করে তথা ভালোবাসা প্রকাশ করে। রোজ ডে ভালোবাসা দিবসের একটি প্রাথমিক ধাপ। এই জিনের মাধ্যমে ভালোবাসা দিবসের সূচনা হয়।

প্রপোজ ডে

৮ ফেব্রুয়ারি পালিত হয় প্রপোজ ডে। রোজ ডে এর পরের দিন প্রপোজ ডে পালন করা হয়। প্রপোজ ডে তে একে অন্যকে নিজের মনের কথা জানিয়ে প্রপোজাল দেয়। প্রেমিক-প্রেমিকারা প্রপোজ ডে তে একে অন্যকে বন্ধু হবার বা জীবনসাথী হবার জন্য প্রপোজ করে থাকে।

চকলেট ডে

রোজ ডে, প্রপোজ ডে এগুলার পরে আসে চকলেট ডে। ভালোবাসা দিবসের আর আগে ধাপ চকলেট ডে। এইদিন প্রেমিক-প্রেমিকারা একে অন্যকে চকলেট বা মিষ্টি দেয়। নিজেরা মিস্ট্রি অফ করে। 9 ফেব্রুয়ারি চকোলেট ডে পালন করা হয়। ভালোবাসা দিবসের অন্যতম দিন হল চকলেট ডে। মেয়েরা চকলেট খেতে খুব পছন্দ করে। তাই কেউ তাদের চকলেট ডেতে চকলেট উপহার দিলে নিজেকে খুশি মনে করে।

টেডি ডে

প্রতিবছর 10 ই ফেব্রুয়ারি টেডি ডে পালন করা হয়। টেডি হচ্ছে এক ধরনের পুতুল বিশেষ শিশুদের প্রিয়। কিন্তু এইটা দিকে ভালোবাসা দিবসের একটি বাহন করে টেডি ডে নামে একটি ডি এর উৎপত্তি হয়েছে। এই দিনে লাভাররা তাদের ভালোবাসার মানুষকে টেনে উপহার দেয়।

প্রমিস ডে

11 ফেব্রুয়ারি কে প্রমিস ডে হিসেবে পালন করা হয় । প্রমিস মানে প্রতিজ্ঞা করা অর্থাৎ কথা দেওয়া। ভালোবাসার বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে একে অন্যকে কথা দেয় সারা জীবন একসাথে থাকার। দুজন মানুষ প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয় সারা জীবনের জন্য।

হাগ ডে

12 ই ফেব্রুয়ারি হচ্ছে হাগ ডে। কথা থেকে অন্যের সাথে কোলাকুলি করা। প্রেমিক-প্রেমিকারা একে অন্যের সাথে ভাগ করে। ভালোবাসা দিবসের জন্য হাগ ডে কে প্রাধান্য দেওয়া হয়। আমরা যারা একে অপরকে ভালবাসে তারা এই দিনটার জন্য অপেক্ষা করি।

ভালোবাসা দিবসের শুভেচ্ছা

ইতালির মতো বিশ্বের প্রায় বেশ কিছু দেশে ভ্যালেন্টাইন ডে পালিত হয়। খ্রিস্টানদের গণ্ডি পেরিয়ে এ দিবসটি এখন বাঙ্গালীদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। তবে এটি কোন সরকারি ছুটির দিন নয়। আমরা অনেকেই আমাদের কাছের মানুষ প্রিয় জন বন্ধু-বান্ধব বা কাজিনদের ভ্যালেন্টাইন শুভেচ্ছা জানাতে চাই। এটি আমাদের সহজাত প্রবৃত্তি। আর এই শুভেচ্ছাবার্তা জানানোর মাধ্যম হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম।

ভালোবাসা দিবসের এস এম এস

বর্তমান কৃত্রিম জীবনে আমরা সবাই যন্ত্র দ্বারা চালিত। তাই এখন আমরা মনের কথাগুলো যন্ত্রের মাধ্যমে জানাতে অভ্যস্ত। তাই ভালবাসা দিবসে আমরা আমাদের প্রিয়জনদের কে ভালোবাসা জানাতে পারি এসএমএস পাঠিয়ে। এসএমএস এর মাধ্যমে আমরা আমাদের মনের নিগূঢ় কথাগুলো আমাদের কাছের মানুষটিকে জানাতে পারি।

ভালোবাসা দিবসের কবিতা

সব মানুষের মনেই ভালোবাসা রয়েছে। হাজারো বেরসিক হোক না কেন সে ভালোবাসা ছাড়া কোনো মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে না। আর তাই আমাদের সবার মনেই কিছু-না-কিছু রং আছে। আমরা যদি চাই আমাদের প্রিয়জনদের মনের কথাগুলো সরাসরি না বলে কবিতার মাধ্যমে জানাতে পারি। আর তাই কবিতার জন্য আপনাকে কোন চিন্তাই করতে হবে না।

১৪ ই ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবস।

Leave a Comment